ফেসবুক থেকে ইনকাম এর কিছু পথ

এই তথ্য প্রযুক্তির যুগে আমরা যেন সোনায় সোহাগা, আমরা এখন কোন প্রকার শারিরীক পরিশ্রম না করে ধরে বসেই ফেসবুক এর মাধ্যমে টাকা ইনকাম করতে পারেন। এখন আর আমাদের চাকরির জন্য ঘুরে ঘুরে জুতা ক্ষয় করার প্রয়োজন পড়ে না। সেই সাথে নতুন প্রজন্মের জন্যও উন্মুক্ত হলো এক নতুন আশার দুয়ার। তো চলুন জেনে নেই ফেসবুক থেকে ইনকামের কিছু পথ সম্পর্কে ।

১। ফেসবুক পেইজ মনিটাইজেশন:

আপনি আপনার টার্গেটেড যে কোন বিষয় নিয়ে একটি ফেসবুক পেইজ খুলতে পারেন। এবং সেই পেইজে ফেসবুক এর এড মনিটাইজেশন এর মাধ্যমে টাকা ইনকাম করতে পারেন । তবে সেই পেইজে নিয়মিত কন্টেন্ট আপডেট করতে হবে। যেন ধীরে ধীরে আপনার পেইজ টি সকলের মাঝে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। এবং সেক্ষেত্রে একটা বিষয়ের প্রতি বিশেষভাবে নজর দিতে হবে। যেমন: অন্যের কন্টেন্ট কপি করা যাবে না। কোন জনগোষ্ঠী কে হেয় করা হয় এমন কিছু দেয়া যাবে না।কেননা ফেসবুক সবসময় আপনার কন্টেন্ট এর প্রতি বিশেষ নজর রাখছে। এছাড়া কন্টেন্ট এর প্রকৃত মালিক যদি আপনার বিরুদ্ধে রিপোর্ট করে তাহলে সবই শেষ। এছাড়াও সবসময় ফেসবুক এর নীতির উপর খেয়াল রাখতে হবে এবং সে অনুযায়ী আপনার পেইজ পরিচালনা করতে হবে। অন্যথায় আপনার পেইজ মনিটাইজেশন হারাতে পারেন। বাংলাদেশে এমন অনেক বড় বড় পেইজ আছে যারা ফেসবুক পেইজ এর মাধ্যমে ইনকাম করছে হাজার হাজার টাকা।

২। লোকাল বিজ্ঞাপন:

আপনার ফেসবুক পেইজ যদি খুবই জনপ্রিয় হয় তাহলে আপনি আপনার লোকাল যে কোন বড় ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে বিজ্ঞাপন নিয়ে তা আপনার ভিডিও বা পেইজে দিতে পারেন। এতে করে আপনার ফেসবুক বিজ্ঞাপনের বাইরেও কিছু টাকা ইনকাম করা হলো। আপনি এই কাজটি ফেসবুক মনিটাইজেশন এর পাশাপাশি চালিয়ে যেতে পারেন।

৩। ফেসবুক মার্কেটিং:

ফেসবুক থেকে ইনকাম এর অন্যরকম এক দারুন মাধ্যম হলো ফেসবুক মার্কেটিং। আপনি চাইলে অন্যের পন্য নিয়ে ফেসবুকে মার্কেটিং করে তার কাছ থেকে বুঝে নিতে পারেন কমিশন।অথবা নিজের জন্যও করতে পারেন মার্কেটিং। ধরুন আপনার একটি পুরনো মোবাইল আছে সেটি বিক্রি করার প্রয়োজন হলো সেক্ষেত্রে আপনি আপনার পেইজে বিজ্ঞাপন এর মাধ্যমে দ্রুত তা বিক্রি করে দিতে পারেন। এছাড়া অন্যের মোবাইল এর বিজ্ঞাপন দিয়ে তা সেল করার মাধ্যমে কিছু টাকা বুঝে নিতে পারেন। জনপ্রিয় মার্কেটপ্রেস ফাইবার.কম এ অনেক প্রোফাইল এ খেয়াল করে দেখবেন তারা এই ফেসবুক মার্কেটিং এর মাধ্যমে প্রতি ঘন্টা হিসেবে টাকা বুঝে নিচ্ছে।তারা ঐ কোম্পানির রিমোট ওয়ার্কার হিসেবে তাদের ফেসবুক পেইজ পরিচালনা করে থাকে।

৪।এফ কমার্স:

বর্তমানে তরুনদের এক অন্যরকম সম্ভাবনাময় পেশার নাম এফ কমার্স বা ফেসবুক ‍ভিত্তিক ব্যবসা।এখনকার তরুনদের মাঝে এই ব্যবসা এখন অনেক জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। নিজের বা অন্য কারে কারো পন্য বিক্রি করে ফেসবুক থেকে ইনকাম করতে পারেন হাজার হাজার টাকা। যাকে আমরা রিসেলিং বলে থাকি। আপনি এই পেশায় আসতে চাইলে অবশ্যই আপনাকে এফ কমার্স নিয়ে সঠিক ধারনা থাকতে হবে। প্রয়োজনে এ বিষয়টি নিয়ে পড়াশোনা করে নিতে হবে। অন্যথায় লাভের চেয়ে লস এর পাল্লা ভারি হতে পারে।

৫। অ্যাকাউন্ট সেল করা:

আপনার যদি অব্যবহৃত কোন ফেসবুক একাউন্ট, পেইজ, বা গ্রুপ থাকে তাহলে তা বিক্রি করে দিয়েও অর্থ উপার্জন করতে পারেন। কেননা এসব পুরনো একাউন্ট এ অনেক লাইক, ফ্যান বা ফলোয়ার থাকে। এজন্য ধীরে ধীরে এসব পুরনো আইডি, ফ্যান পেইজ বা গ্রুপের চাহিদা বেড়েই চলেছে।

৬। সিপিএ অ্যাফিলিয়েশন:

সিপিএ যার মূল শব্দ হচ্ছে (কস্ট পার একশন)। আপনি ফেসবুকে সিপিএ লিংক প্রমোশনের মাধ্যমে ফেসবুক থেকে ইনকাম করতে পারেন। ফেসবুকে সিপিএ প্রমোশনের মাধ্যমে আপনার টার্গেটেড মানুষকে আপনার পন্য কেনার প্রতি উৎসাহিত করতে পারেন।এবং আপনার টার্গেটেড মানুষ যদি সেই পন্য ক্রয় করে তাহলে আপনি একটি কমিশন পাবেন। এটি সাধারণত দু ভাবে করা যায় যেমন: ফ্রী মেথড এবং পেইড মেথড।

ক। ফ্রী মেথড: আপনি এই মেথডে বিভিন্ন গ্রুপে বা আপনার সিপিএ পেইজ এ আপনার সিপিএ প্রমোশনের মাধ্যমে আপনার টার্গেটেড মানুষকে আপনার পন্য কেনার প্রতি উৎসাহিত করতে পারেন।

খ। পেইড মেথড: এই মেথডে আপনাকে কিছু টাকা খরচ করতে হবে ফেসবুকে এড রান করার জন্য। অর্থাৎ ফেবুককে কিছু টাকা প্রদান করে আপনার সিপিএ লিংক আপনার টার্গেটেড মানুষদের সামনে তুলে ধরতে পারেন। একে করে তাদের আপনার পন্য কেনার প্রতি ঝোক বেশী হতে পারে। তবে এক্ষেত্রে প্রথম যে বিষয়ে খেয়াল রাখতে হবে তা হলো সঠিক অডিয়েন্স সেট করা। কেননা সঠিকভাবে অডিয়েন্স সেট না করলে আপনার বিজ্ঞাপন সঠিক মানুষদের কাছে যাবে না। এত করে আপনার কোর প্রফিট আসবে না।তাই আপনাদেরকে বলবো আপনারা প্রথমেই পেইড মেথডে না গিয়ে, ফ্রি মেথডে কাজ করুন। এবং বকেসময় কিছু টাকা ইনকাম হলে। পেইড মেথডে চলে আসুন।

৭। ফেসবুক সার্ভে:

সার্ভে বলতে আমরা বুঝি জায়গা জমি মাপা কে। তবে এটা সেই সার্ভে না। এই সার্ভে হলো। মতামত দেয়া । অর্থাৎ কোন পন্য আপনার কাছে কেমন লাগলো তা সেই কোম্পানীকে জানানো ই হলো সার্ভে। আমরা মাঝেমধেই আমাদের নিউজ ফিডে এমন কন্টেস্ট বা সার্ভে দেখতে পাই। তারা তাদের পেইজে বিভিন্ন প্রশ্ন করে থাকে সে প্রশ্নগুলোর সঠিক উত্তরদাতাদের মধ্যে বাছাই করে তার বিশেষ ভাবে পুরষ্কৃত করে।

Share
  •  
  •  

Leave a Reply